নাটোরে ১৫০০ টাকা ধারের জেরে বন্ধুকে হত্যা, যুবকের যাবজ্জীবন

আপডেটঃ ৭:৩৩ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২

নাটোরে বন্ধুকে হত্যা মামলায় জসিম উদ্দিন নামে একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক শরীফ উদ্দীন এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত জসিম সদর উপজেলার চৌরী গ্রামের বকুল মিয়ার ছেলে।

নাটোর জজ কোর্টের পিপি সিরাজুল ইসলাম জানান, ২০১৮ সালের ৩১ আগস্ট বিকেলে চৌরী গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে সোহাগ বাড়ি থেকে বের হয়। পরে সন্ধ্যায় পাশের লক্ষ্মীপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের পুকুরপাড় থেকে তার রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পর দিন সোহাগের বাবা বাদী হয়ে সদর থানায় অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনার অনুসন্ধানে নেমে পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় হত্যার সঙ্গে তারই বন্ধু জসিমের সংশ্লিষ্টতা পায়।

পিপি সিরাজুল ইসলাম জানান, পুলিশ জসিমকে গ্রেফতারের পর জানতে পারে সোহাগের কাছ থেকে দেড় হাজার টাকা ধার নিয়ে জুয়া খেলে হেরে যায় জসিম। পাওনা টাকার জন্য সোহাগ চাপাচাপি শুরু করলে জসিম তাকে হত্যার পরিকল্পনা করে। ঘটনার দিন কৌশলে সোহাগকে বাড়ি থেকে ডেকে পুকুরপাড়ের নির্জন স্থানে নিয়ে ধারালো হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

গ্রেফতারের পর থেকে জসিম কারাগারে আছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার উপপরিদর্শক আকরামুল ইসলাম জসিমকে একমাত্র অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। দীর্ঘ ৪ বছর মামলার সাক্ষ্য প্রমাণ গ্রহণ শেষে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক শরীফ উদ্দীন অভিযুক্ত জসিম উদ্দিনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন। এ সময় অভিযুক্ত জসিম আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।