ব্রেকিং নিউজঃ

মোহনগঞ্জের জয়পুর বাজারে হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনের দাবিতে মানববন্ধন

আপডেটঃ ৭:১৪ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ২৫, ২০২২

 

মোহনগঞ্জ (নেত্রকোনা) সংবাদদাতা:  নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার ৫ নং সমাজ সহিলদেও ইউনিয়নের জয়পুর বাজারে শরীফ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনসহ হত্যাকারীদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী ।

রোববার ( ২৫ ডিসেম্বর) বিকেলে অত্র উপজেলার সহিলদেও ইউনিয়নের জয়পুর বাজারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে জয়পুর পশ্চিমপাড়া যুব উন্নয়ন ক্লাবসহ ৪-৫টি সামাজিক সংগঠনের সদস্যরা এ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে।

মানববন্ধনে সহিলদেও ইউপি সদস্য আবু বক্কর সিদ্দিক, সাবেক ইউপি সদস্য আ. হাকিমসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বক্তব্য দেন। বক্তারা বলেন, শরীফ একটা নিরিহ ছেলে। যারা তাকে রাতের আঁধারে নির্মমভাবে গলা কেটে হত্যা করেছে, তাদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে কঠোর সাজা দেওয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি দাবি জানান তারা।

হত্যাকাণ্ডের শিকার মো. শরীফ মিয়া (২২) উপজেলার জয়পুর গ্রামের মো. জামরুল ইসলামের ছেলে। শরীফের সাত মাস বয়সী একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে।

গত ১০ ডিসেম্বর রাতে বাড়ির পাশে খেতে শরীফের গলাকাটা লাশ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় দুইদিন পর বাবা জামরুল ইসলাম অজ্ঞাত আসামি দেখিয়ে থানায় মামলা করেন। পরে এ মামলায় জয়পুর গ্রামের মাজহারুল ইসলাম নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠায় পুলিশ। পরে তাকে তিন দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। মাজহারুল এ মামলায় বর্তমানে কারাগারে রয়েছে।

শরীফের বাবা জামরুল ইসলাম বলে, গ্রেপ্তারকৃত প্রতিবেশী মাজহারুল এর ভাবীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কে লিপ্ত ছিল বলে এলাকায় প্রচার রয়েছে । আমার ছেলে শরীফ তার ওই অনৈতিক সম্পর্ক দেখে ফেলে ও তাকে বাধা দেয়। এ নিয়ে শরীফের প্রতি ক্ষিপ্ত ছিল মাজহারুল। হয়তো সেদিনও আবার মাজহারুলকে দেখে ফেলায় শরীফকে হত্যা করেছে। ছেলেকে আর ফিরে পাব না। তবে হত্যাকারী পুলিশের তদন্তে নিশ্চিত হয়ে সাজা হলে কিছুটা হলেও আমি শান্তি পাব।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) হারুন অর রশিদ বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামির কাছ থেকে এ হত্যার অনেক ক্লু পেয়েছি। সেগুলো যাচাই-বাচাই করা হচ্ছে। আশা করছি দ্রুত এ হত্যার রহস্য উদঘাটন করতে পারব। তবে হত্যার ১৫ দিন পর মামলার এখনো কোনো কুল কিনারা হয়নি ।