ব্রেকিং নিউজঃ

ধনবাড়ীতে ভাতিজার দায়ের কোপে চাচা খুন, ভাতিজা গ্রেপ্তার

আপডেটঃ ৯:১২ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০৪, ২০২৩

 

ধনবাড়ী (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা : টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে ভাতিজার দায়ের কোপে মো. শরিফ উদ্দিন(৩৫)নামের এক চাচা খুন হয়েছেন। এই ঘটনায় ভাতিজা মো. ইদ্রিস আলী (৫০) কে উপজেলার বানিয়াজান ইউনিয়নের বানিয়াজান দক্ষিণপাড়া নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার ওই ইউনিয়নের বানিয়াজান দক্ষিণপাড়া বাবুল বাজারের এক চায়ের দোকানের পাশে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. শরিফ উদ্দিন ওই গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। ইদ্রিস আলী একই গ্রামের মৃত করিম উদ্দিনের ছেলে এবং বানিয়াজান ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড বিএনপির বর্তমান সভাপতি। ধনবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এইচএম জসিম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতের মা হাজেরা বেগম ও ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী চায়ের দোকানদার হায়দার আলী, মতিয়ার রহমানসহ স্থানীয়রা বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যা পৌনে ৭ টার দিকে দোকানের পাশে প্রস্রাব করতে বসে শরিফ। হঠাৎ করে ইদ্রিস ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাঁর মাথায় কোপ দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ সময় রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়ারা তাঁকে উদ্ধার করে ধনবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায় সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পথিমধ্যে আহত শরিফের মৃত্যু হয়। পূর্ব শত্রুতার দ্বন্ধে ইদ্রিস শরিফকে খুন করেছে। আমরা এর বিচার চাই। শরীফ ও ইদ্রিস সম্পর্কে চাচা ভাতিজা।

এদিকে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ইদ্রিস আলীর স্ত্রী খালেদা বেগম বলেন, ‘রাতে পুলিশ এসে তাঁকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে গেছে।’ শরিফ উদ্দিনের স্ত্রী আফরোজা বেগম বলেন, ‘আমার স্বামীকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। আমার অবুঝ মেয়াটার এখন কি হবে। সে আর কাকে বাবা বলে ডাকবে বলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।’

এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার বিচার দাবি করে স্থানীয় ইউপি সদস্য জামাল উদ্দিন জবান বলেন, ‘এই ঘাতকের কঠোর বিচার হওয়া দরকার।’

থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)এইচএম জসিম বলেন, ‘ঘটনার খবর পেয়ে রাতেই ওসি তদন্ত ইদ্রিস আলী ও সকল অফিসারসহ ফোর্সদের সাথে নিয়ে অভিযান চালিয়ে ঘাতককে গ্রেপ্তার করে বুধবার(৪ জানুয়ারী২৩)ইং আদলতে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতের বড় ভাই বাবুল হোসেন বাদি হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।’