ব্রেকিং নিউজঃ

রৌমারীতে বলাৎকার মামলায় আটক-১

আপডেটঃ ১১:৪৯ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ১২, ২০২৩

 

মোস্তাফিজুর রহমান তারা, রৌমারী (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা : কুড়িগ্রামের রৌমারীতে বিভিন্ন লোভ লালশায় ঘরে নিয়ে আড়াই বছর বষসী এক শিশুকে বলাৎকার ঘটনায় মতিয়ার রহমান (৫০)কে হাতে নাতে আটক করেছে অভিভাবক। আটককৃত ব্যাক্তি দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের ছোট কাউনিয়ারচর গ্রামের মৃত সমেজ উদ্দিনের পুত্র। ১০ জানুয়ারী মঙ্গলবার দাঁতভাঙ্গা হরিণধরা গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। ১১ জানুয়ারী বুধবার রৌমারী থানায় শিশুর পিতা বাদী হয়ে বলাৎকার ঘটনায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের ছোট কাউনিয়ারচর গ্রামের সমেজ উদ্দিনের পুত্র মতিয়ার রহমান (৫০) শিশুটিকে কয়েকদিন থেকে বিভিন্ন ভাবে লোভ লালশা দেখান। গত মঙ্গলবার বিকাল ৪ টার সময় শিশুটিকে ঘরে ডেকে নিয়ে বলাৎকারের চেষ্টা করতে গেলে শিশুটি চিৎকার করে। তার আত্মচিৎকারে শিশুটির বড় বোন দেখতে পায়। পরে শিশুটির মা জমিলা খাতুনকে বলে। মা বলাৎকার ব্যক্তি মতিয়ার রহমানকে ধাক্কায় ফেলে দিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে। বলাৎকার ব্যক্তির মেয়ে রূপসী ও জামাই আমিন উদ্দিন তাকে পালিয়ে যাওয়ার সহযোগীতা করেন।
এমতাবস্থায় শিশুর পিতা রাজু মিয়া রাত ৯ টার দিকে বিষয়টি জানতে পেরে রৌমারী থানায় একটি বলাৎকার ঘটনায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে মতিয়ার রহমানকে রাত আনুমানিক সাড়ে ৩ টায় আটক করে নিয়ে আসা হয় রৌমারী থানায়।
এবিষয়ে রাজু মিয়া বলেন, আমি এমন ঘটনাটি জানতাম না। রাত ৯ টার দিকে জানতে পেরে রৌমারী থানায় এসে একটি অভিযোগ দায়ের করেছি। অভিযোগের ভিত্তিতে মতিয়ার রহমানকে আটক করে এনেছে থানায়। তবে এ নোংরা ঘটনার সঠিক বিচার চাই।
এ বিষয়ে রৌমারী থানা অফিসার ইনচার্জ রূপ কুমার সরকার জানান, বলাৎকার ঘটনার অভিযোগ পেয়ে মতিয়ার রহমানকে আটক করে এনেছি। তবে এ বিষয়ে শিশু নির্যাতনের ঘটনায় তদন্ত পুর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হতে পারে।