রেমিট্যান্স-রপ্তানিতে ডলারের রেট নির্ধারণ

আপডেটঃ ৮:২৬ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১২, ২০২২

রেমিট্যান্স ও রপ্তানিতে ডলারের রেট নির্ধারণ করা হয়েছে। এবার রেমিট্যান্স গ্রহণে সব ব্যাংক ডলার প্রতি সর্বোচ্চ ১০৮ টাকা দেবে। এর সঙ্গে সরকারের ২.৫০ শতাংশ প্রনোদণা যোগ করে প্রবাসীরা ডলার প্রতি ১১০.২০ টাকার কিছু বেশি পাবেন। এছাড়া, আমদানির এলসি নিষ্পত্তিতে ডলার প্রতি সর্বোচ্চ ১০৪.৫০ টাকা এবং রপ্তানি বিল নগদায়ন করতে ডলার প্রতি সর্বোচ্চ ৯৯ টাকা নির্ধারন করা হয়েছে।

রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) ও বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ অথরাইজড ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বাফেদা) যৌথ সভায় ডলারের রেট নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও সিইও এবং বাফেদার চেয়ারম্যান মো. আফজাল করিম, এবিবির চেয়ারম্যান ও ব্র্যাক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সেলিম আর এফ হোসেন ছাড়া বিভিন্ন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সংগঠন দুটি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সঙ্গে গত বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে আলোচনা করেছে।

সভা শেষে সোনালী ব্যাংকের এমডি আফজাল করিম বলেন, আমাদের মূল উদ্দেশ্য দেশের সবগুলো ব্যাংকের মানি এক্সচেঞ্জ রেট যেন এক হয়। ডলারের সংকট ও বর্তমান পরিস্থিতি বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এখানে বাফেদা ও এবিবির সব সদস্য একমত হয়েছি যে এখন প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের সর্বোচ্চ ডলার রেট হবে ১০৮ টাকা। বাণিজ্যিক রেমিট্যান্স ও রপ্তানি বিলের ক্ষেত্রে রেট নির্ধারণ করা হয়েছে ৯৯ টাকা। এটা ফিক্সড। এ রেট সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) থেকে সবাই কার্যকর করবে।

তবে রেট কিছুদিন পরপর পরিবর্তন হবে বলে জানিয়েছেন এবিবি ও বাফেদার নেতারা। কেন্দ্রীয় ব্যাংক এই রেট পর্যবেক্ষণ করবে এবং নিয়মিত ব্যাংকগুলোর সঙ্গে তথ্য উপাত্ত বিনিময় করবে।

ডলারের এক রেট নির্ধারণের ফলে ব্যাংকগুলোর মধ্যে অসুস্থ প্রতিযোগিতা হবে না বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তাতে ডলার নিয়ে ব্যাংকগুলো অতিরিক্ত মুনাফাও করতে পারবে না বলে মনে করছেন তারা।

ডলারের বাজারে অস্থিরতা কমাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক নানা উদ্যোগ নিয়েছে। একই সঙ্গে ডলার নিয়ে যাতে কেউ কারসাজি করতে না পারে সেজন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরিদর্শন টিম নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছে।