মানুষের যৌনজীবনের প্রতি করনের বেশি আকর্ষণ: কঙ্গনা

আপডেটঃ ৮:৫৭ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১০, ২০২২

ফের নির্মাতা করন জোহরকে খোঁচা দিলেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রাণৌত।

শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) মুক্তি পেয়েছে রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভাট অভিনীত সিনেমা ‘ব্রহ্মাস্ত্র’। সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন করন জোহর। আর পরিচালনা করেছেন আয়ান মুখার্জি। ফটো ও ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমাটির সমালোচনা করেছেন কঙ্গনা।

কঙ্গনার দাবি, সিনেমাটির বাজেট অর্থাৎ ৬০০ কোটি রুপি আগুনে পুড়িয়েছেন করন। তিনি লিখেছেন, ‘করনের মতো মানুষদের তাদের অপরাধের জন্য জিজ্ঞাসাবাদ করা উচিৎ। সিনেমার চিত্রনাট্যের চেয়ে মানুষের যৌনজীবনের প্রতি তার আকর্ষণ বেশি। তিনি রিভিউ, তারকা, বক্স অফিসের আয়ের বানোয়াট খবর এবং টিকেট কেনেন। এখন তিনি হিন্দুত্ববাদকে ভর করে দক্ষিণী সিনেমার নকল করার চেষ্টা করছেন।

বলিউডের ‘কুইন’খ্যাত এই অভিনেত্রীর দাবি, সিনেমার প্রচারের জন্য দক্ষিণী সিনেমার তারকাদের ব্যবহার করেছেন করন। তার ভাষায়, ‘তারা সব চেষ্টা-ই করছেন কিন্তু কেন যোগ্য লেখক, পরিচালক অভিনয়শিল্পীদের সিনেমায় নেন না। প্রথমেই তারা কেন এটি করে না কিন্তু পরে ব্রহ্মাস্ত্র’র মতো ফ্লপ সিনেমা চালানোর জন্য ভিক্ষা চায়।’

পরিচালক আয়ান মুখার্জির সমালোচনা করে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘আয়ান মুখার্জিকে যারা প্রতিভাবান বলে তাদের কারাদণ্ড হওয়া উচিৎ। এই সিনেমা নির্মাণ করতে তিনি ১২ বছর বয়স নিয়েছেন। ১৪ জন চিত্রগ্রাহক পরিবর্তন করেছেন এবং ৪০০ দিনের বেশি শুটিং করেছেন। এর মধ্যে ৮৫ জন সহকারী পরিচালক পরিবর্তন এবং ৬০০ কোটি রুপি পুড়িয়ে ছাই করেছেন। শুধু তাই নয়, বাহুবলির সাফল্য দেখে জালালুদ্দিন রুমি থেকে শেষ মুহূর্তে সিনেমার নাম শিবা রেখে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের চেষ্টা করেছেন। এরকম সুযোগ সন্ধানী, সৃষ্টিশীলতায় অক্ষম ও লোভী মানুষকে প্রতিভাবান বলা আর দিন কে রাত ও রাত কে দিন ভাবা একই ব্যাপার।’

‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমাটি তিন ভাগে মুক্তি দেওয়া হবে। প্রথম অংশের নাম রাখা হয়েছে ‘শিবা’। রণবীর-আলিয়া ছাড়াও এতে অভিনয় করছেন— অমিতাভ বচ্চন, নাগার্জুনা, মৌনি রায় প্রমুখ। হিন্দির পাশাপাশি তামিল, তেলেগু, কন্নড় ও মালায়ালাম ভাষায় মুক্তি পেয়েছে এই সিনেমা।